কোহলি-বুমরাহ ছাড়া বাকিরা লবডঙ্কা! ভারতকে অলআউট করল উইন্ডিজ

বিরাট কোহলি শতরান করবেন। জসপ্রীত বুমরাহ উইকেট নেবেন। এটাই হয়ে দাঁড়িয়েছে ভারতীয় ক্রিকেটের ট্রেডমার্ক। উইন্ডিজের বিরুদ্ধে তৃতীয় ম্যাচে ভারতের হার নিশ্চিত হওয়ার আগেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঘোরাফেরা করছিল এমন রসিকতা। ঘটনা হল, লাগাতার সেঞ্চুরির হ্যাটট্রিক করার পর ১০৭ রানে বিরাট হারার পরই ভারতের হার নিশ্চিত হয়ে যায়। ২৪০ রানে অলআউট হল বিশ্বের সেরা ব্যাটিং লাইনআপ।   

এদিন ভারতকে ৪৩ রানে হারিয়ে সিরিজ বরাবার করে নিল উইন্ডিজ। ভাঙা দল নিয়েও বিশ্বের শক্তিশালী ব্যাটিং লাইনআপকে দুমড়ে দিল তারা। গত ম্যাচে টাই করার পর এদিন উইন্ডিজের সামনে টিকতে পারেননি কোনও ভারতীয় ব্যাটসম্যানই। অবশ্যই ব্যতিক্রম বিরাট কোহলি। রান মেশিনের ব্যাট থেকে এদিনও এল আর একটি চোখ ধাঁধানো শতরান। কিন্তু বিরাটকে সঙ্গত দেওয়ার মতো কাউকে পাওয়া গেল না। শুরুতেই আউট হন উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান রোহিত শর্মা। এরপর শিখর ধবনকে নিয়ে দলের স্কোরকে এগিয়ে নিয়ে যেতে থাকেন অধিনায়ক কোহলি। শিখর ফেরার পর পালা করে পরতে ভারতের উইকেট। নবাগত পন্থ থেকে ধোনি সকলেই হতাশ করেছেন। একদিনের ক্রিকেটে ধোনির জায়গা নিয়ে ফের উঠল প্রশ্ন। এদিন দুধর্ষ একটা ক্যাচ নিয়েছেন বটে, কিন্তু ধোনির ব্যাটে চলছে রানের খরা। হার্দিক পান্ডিয়া কোমরের চোট নিয়ে বাইরে। ধোনিও আগের মতো ফর্মে নেই। ফলে ফিনিশারের অভাবে ভুগতে হচ্ছে টিম ইন্ডিয়াকে। অফ স্টাম্পে বাইরের বল খোঁচা দেন ধোনি। লোপ্পা ক্যাচ তালুবন্দি হল উইকেটকিপার সাই হোপের।

প্রথমে ব্যাট করে ২৮৩ রান তোলে উইন্ডিজ। উইন্ডিজ ব্যাটিংকে খাদের কিনারা থেকে টানেন সাই হোপ। তাঁর সংগ্রহে ৯৫ রান। ৪টি উইকেট তুলে নেন জসপ্রীত বুমরাহ। শুরুতেই উইন্ডিজের পরপর উইকেটতুলে যে চাপটা তৈরি করেছিল ভারত, তা রাখতে পারলেন বোলাররা। শেষের আগের ওভারে ঠ্যাঙানি খেয়ে গেলেন ভুবনেশ্বর কুমার। ওই ওভারেই উঠল ২১ রান।

ধোনি না-হয় ছন্দে নেই, ফর্ম হাতড়ে বেড়াচ্ছেন, কিন্তু বাকিরা? অবিবেচকের মতো শট খেলে উইকেট দিয়ে এলেন ঋষভ পন্থ ও ভুবনেশ্বর কুমার। ঋষভকে বুঝতে হবে উইকেটের একটা মূল্য আছে। অপরদিকে যখন ফর্মের তুঙ্গে থাকা বিরাট কোহলি, তখন কেন অযথা তাড়াহুড়ো? সিঙ্গলস নিয়েই বিরাটকে  দেওয়া যেত। একদিকে উইকেট পড়ছে, অন্যদিকে বাড়ছে রান রেট- চাপ টের পেলেন বিরাট কোহলি। স্যামুয়েলসের লোপ্পা বলে মারতে গেলেন। বল নিচু হয়ে উড়িয়ে দিল কোহলির উইকেট। ব্যস তখনই শেষ ভারতের যাবতীয় আশা-ভরসা। ১০৭ রানে মাথা নাড়তে নাড়তে ফিরলেন কোহলি। আর কত ম্যাচ তিনি এভাবে দলকে টানবেন?

Post a Comment

0 Comments