সূর্যের আবেদনে সাড়া দিলেও দোলাচলে প্রদেশ কংগ্রেস

 প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি পদে ফেরার পর পুরানো লাইন মেনেই ‘একলা চলো’র বার্তা দিয়েছিলেন সোমেন মিত্র৷ কিন্তু মঙ্গলবার সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র ঘুরিয়ে কংগ্রেসের সঙ্গে জোটের বার্তা দেন৷

এর ২৪ ঘণ্টা কাটতে না কাটতে সূর্যকান্ত মিশ্রর বক্তব্যকে স্বাগত জানাতে বাধ্য হলেন ‘ছোড়দা’৷ তিনি বলেছেন, ওঁরাই আমাদের হাত ছেড়েছিলেন৷ এখন ওঁরাই আবার হাত ধরতে চাইছেন৷ ওনারা রাহুল গান্ধীর সঙ্গে কথা বলুন৷ হাইকম্যান্ড যা বলবে আমরা করব৷

ঠিক একই অবস্থা হয়েছিল অধীর চৌধুরীরও৷ কংগ্রেস নেতা হিসেবে মুর্শিদাবাদে যে দলের বিরুদ্ধে তাঁকে জীবন হাতে নিয়ে এক সময় ভোটে লড়তে হত, সেই সিপিএমের সঙ্গেই তাঁকে হাত মেলাতে হয়েছিল সোনিয়া গান্ধীর নির্দেশে৷ দলের পুরানো কর্মী-সমর্থকদের মতে, সোমেন মিত্রর মতো সংগঠক কংগ্রেসে খুব কম ছিল৷ একটা সময় সিপিএমের বিরুদ্ধে লড়ার জন্য তিনি ব্লকস্তরে কংগ্রেস সংগঠনকে গড়ে তোলার জন্য উদ্যোগী হয়েছিলেন৷ তখন গ্রামবাংলায় সিপিএমের দোর্দণ্ডপ্রতাপ পঞ্চায়েতিরাজের শাসন৷ সন্ত্রাসের স্টিম রোলার চলছে৷

১৯৮২ সালের বিধানসভা নির্বাচনে সিপিএম জিতে ফেরার পর জেলায় জেলায় তারা কংগ্রেসের সংগঠকদের খুন করার লাইন নিয়েছিল৷ সেইসব দিনের কথা সোমেন মিত্রর মতো ইন্দিরা গান্ধীর শিষ্য তথা পুরানো কংগ্রেস কর্মীর পক্ষে ভোলা সম্ভব নয়৷ তবু তাঁকে আজ প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি হিসেবে জোট সমঝোতার জন্য সিপিএমকে স্বাগত জানাতে হচ্ছে৷ অথবা বলা ভাল তাঁকে বাধ্য হতে হচ্ছে৷

১৯৭৭-এর নির্বাচনে সিপিএম পশ্চিমবঙ্গে জিতেছিল জনতা পার্টির সঙ্গে দোস্তি করে৷ যদিও পরে এরাজ্যে জনতা পার্টিকে তারাই ভ্যানিশ করে দেয়৷ ঠিক যেমন যুক্তফ্রন্ট আমলে অন্যান্য জোট শরিককে মুছে দিয়েছিলেন পুলিশমন্ত্রী জ্যোতি বসু৷ ১০ জনপথ রোডে এখনও যিনি সর্বেসর্বা সেই সোনিয়া গান্ধীর পক্ষে এসব কথা জানা সম্ভব নয়৷ যদিও বাস্তবে এটাই ঘটেছিল৷ ঠিক সেইসময়কার মতোই এখন সিপিএম কাতর হয়ে কংগ্রেসের সঙ্গে দোস্তি চাইছে৷ পরে হয়তো কংগ্রেসের কাছ থেকে পাওয়া ইনসুলিনের জোরে তারা আবার এরাজ্যে কংগ্রেসকেই কচুকাটা করবে৷ ঠিক যেমন অজয় মুখোপাধ্যায়কে তারা রাইটার্সে অপমানিত করেছিল৷ প্রফুল্ল সেনের শরণাপন্ন হয়ে ১৯৭৭-এ জিতে আরামবাগে তাঁকেই চড় মেড়েছিল৷

প্রদেশ কংগ্রেসের অনেকেই এ রকম একটা ভবিতব্যের আশঙ্কা করছেন৷ ঠিক যেমনটা ঘটেছিল অন্ধ্রপ্রদেশে, কিরণ কুমার রেড্ডির ক্ষেত্রে৷ তাঁদের বক্তব্য, সোনিয়াজি বুঝতে পারছেন না সিপিএমের চরিত্র অনেকটা দশানন রাবণের মতো৷ এখন তারা বিজেপির ধুয়ো দিয়ে কংগ্রেসের সঙ্গে মহাজোট চাইছে বটে, কিন্তু এই সিপিএমই রাজীব গান্ধীকে হারাতে ভিপি সিং এবং অটল বিহারি বাজপেয়ীর হাত ধরেছিল৷

Post a Comment

0 Comments