কাশ্মীরে সেনার গুলিতে খতম ২ জঙ্গি, শহিদ এক মেজর

 ডিজিটাল ডেস্ক: ক্রমশ উত্তপ্ত হচ্ছে কাশ্মীরের পরিস্থিতি। শুক্রবার সকালে উত্তর কাশ্মীরের বারামুলা ও সোপোর এলাকায় সেনা ও জঙ্গিদের মধ্যে গুলি বিনিময় হয়। তাতে এক জওয়ান শহিদ হন। খতম হয়েছে দুই জঙ্গি।

উত্তর কাশ্মীরের সোপোর ও বারমুলা এলাকায় শুক্রবার জঙ্গিদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করে ভারতীয় সেনা। দুই পক্ষের মধ্যে অনেকক্ষণই চলে লড়াই। শ্রীনগরের প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের মুখপাত্র কর্নেল রাজেশ কালিয়া জানিয়েছেন, সোপোরে তাঁরা সন্ত্রাস বিরোধী অভিযান চালিয়েছিলেন। অভিযান চলাকালীন জঙ্গিরা তাঁদের উদ্দেশ্য করে গুলি চালাতে শুরু করে। পালটা গুলি চালান তাঁরাও। এই লড়াইয়ে একজন মেজরের গায়ে গুলি লাগে। তাঁকে বাদামীবাগে ৯২ বেসের একটি হাসপাতালে ভরতি করা হয়। কিন্তু তাঁকে বাঁচানো যায়নি। মৃত্যু হয়েছে ওই জওয়ানের।


সোপোরের এসএসপি জাভেদ ইকবার জানিয়েছেন, শুক্রবার ভোরে যৌথভাবে তল্লাশি শুরু করে ভারতীয় সেনা এবং কাশ্মীর পুলিশ। অভিযান চলাকালীন গুলি চালাতে শুরু করে জঙ্গিরা। জবাবে সেনা ও পুলিশের তরফেও গুলি চালানো হয়। তবে গুলির লড়াই এখন থেমেছে বলে জানিয়েছেন তিনি। কিন্তু ওই জায়গার পরিস্থিতি এখনও উত্তপ্ত। তাই এলাকার স্কুল ও কলেজ বন্ধ রাখা হয়েছে। আহত ও নিহতদের দেহ উদ্ধারের কাজ চলছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার রাতেও সেনা ও জঙ্গিদের গুলি বিনিময়কে ঘিরে উত্তপ্ত ছিল উপত্যকা। রাজ্যের বারামুলা ও অনন্তনাগে চলে গুলি। অনন্তনাগের আরওয়ানি এলাকায় চার জঙ্গি খতম হয়। বারামুলার ক্রিরিতে খতম করা হয় দুই জঙ্গিকে। কাশ্মীর পুলিশের তরফে এই খবর জানানো হয়েছে। এই দুই জঙ্গি লস্কর-ই-তইবার সদস্য বলে জানা গিয়েছে। অনন্তনাগে যে চারজন জঙ্গিকে খতম করেছে ভারতীয় সেনা, তাদের পরিচয় এখনও প্রকাশ করা হয়নি। দুটি জায়গা থেকেই প্রচুর অস্ত্রশস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার করেন ভারতীয় জওয়ানরা। উদ্ধার হয় বেশ কয়েকটি বোমা ও গ্রেনেডও। এছাড়া দুই জায়গা থেকেই কয়েকটি ব্যানার পাওয়া গিয়েছে। তাতে উর্দু ভাষায় কিছু লেখা আছে।

Post a Comment

0 Comments