ব্যাঙ্কে ভর্তুকি জমার জন্য আধারই

আধার মামলার রায়ে সুপ্রিম কোর্ট সম্প্রতি জানিয়ে দিয়েছে, গ্রাহক যদি ভর্তুকি বা সরকারি সুবিধা না চায়, তা হলে কোনও সংস্থা বা প্রতিষ্ঠান পরিচয় যাচাইয়ের জন্য আধার কার্ড চাইতে পারবে না। গত সপ্তাহে ব্যাঙ্কগুলির কাছে চিঠি পাঠিয়ে সেই নির্দেশের আইনি দিক ব্যাখ্যা করে দিয়েছেন আধার কর্তৃপক্ষ (ইউআইডিএআই)। চিঠিতে জানানো হয়েছে, সরকারি ভর্তুকি ও সামাজিক প্রকল্পগুলির সুযোগ নিতে চাইবেন যে সমস্ত গ্রাহক, তাঁদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট খোলার সময়ে পরিচয় যাচাইয়ের ক্ষেত্রে আধার নির্ভর বৈদ্যুতিন কেওয়াইসি ব্যবহার করা যাবে। আধার নির্ভর মাইক্রো এটিএমের মাধ্যমে টাকা তোলার সুবিধার ক্ষেত্রেও ব্যবহার করা যাবে একই প্রযুক্তি।

অন্যান্য গ্রাহকদের ক্ষেত্রে অবশ্য বিষয়টি পুরোপুরি তাঁদের ঐচ্ছিক। গ্রাহক সম্মত থাকলে আধার নথি জমা দিতে পারেন। এই সংক্রান্ত বিশদ ব্যাখ্যা রিজার্ভ ব্যাঙ্কের কাছেও পাঠানো হয়েছে।

সূত্রের খবর, শীর্ষ ব্যাঙ্কের আধার মামলার রায়ের পর বিষয়টি সম্পর্কে আইনি পরামর্শ নিয়েছেন আধার কর্তৃপক্ষ। তার ভিত্তিতেই বিস্তারিত তালিকা পাঠিয়ে ব্যাঙ্কগুলিকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, কোন কোন ক্ষেত্রে এবং কী ভাবে তারা গ্রাহকদের আধার তথ্য ব্যবহার করতে পারে। ইউআইডিএআইয়ের সিইও অজয়ভূষণ পাণ্ডে দাবি করেছেন, যে গ্রাহকেরা ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ভর্তুকি নেন না, বৈদ্যুতিন ভাবে তাঁদের আধার যাচাইয়ের ক্ষেত্রে সার্ভারের সাহায্য নিতে হবে না।

যে সমস্ত গ্রাহক আধারের প্রতিলিপি কিংবা বৈদ্যুতিন আধার দিতে সম্মত হচ্ছেন, তাঁদের সেই নথির গোপনীয়তা কী ভাবে রক্ষা করতে হবে, সে ব্যাপারটিও খোলসা করে দিয়েছেন কর্তৃপক্ষ। নথি জমা রাখার সময় আধার নম্বরের প্রথম আটটি সংখ্যা ঢেকে দিতে হবে। উল্লেখ্য, সমস্ত বাণিজ্যিক ব্যাঙ্কের কিছু কিছু শাখায় আধার নথিভুক্তির সুবিধা চালু করার নির্দেশ দিয়েছিলেন আধার কর্তৃপক্ষ। এ দফায় তাঁরা জানিয়েছেন, যে হেতু গ্রাহকের পরিচয় যাচাইয়ের ক্ষেত্রে আধারে ব্যবহার বন্ধ হচ্ছে না, সে কারণে নথিভুক্তির সেই পরিষেবা চালু রাখতে হবে।

Post a Comment

0 Comments