আইজলেই জয়ের রাস্তায় ফিরতে মরিয়া ইস্টবেঙ্গল

পাহাড় থেকেই স্বপ্ন দেখা শুরু হয়েছিল। মাঝে সমতলে ফিরে ধাক্কা খেয়েছে সেই স্বপ্ন। আবার সেই পাহাড়েই স্বপ্ন দেখার লড়াই।


প্রতি আই লিগেই পাহাড় ইস্টবেঙ্গলের চোখের জলের কারণ হয়। পাহাড়ে পয়েন্ট নষ্ট করে বহুবার লিগের লড়াইয়ে পিছিয়ে পড়েছে লাল হলুদ। তবে এবার উলোটপুরান। আই লিগের প্রথম দুটি অ্যাওয়ে ম্যাচেই পাহাড় থেকে ছয় পয়েন্ট নিয়ে ফিরেছে ইস্টবেঙ্গল। বরং তারপর হারতে হয়েছে ঘরের মাঠে চেন্নাই সিটি এফ সি-র বিরুদ্ধে। লিগ শীর্ষে থাকা চেন্নাইয়ের কাছাকাছি পৌঁছাতে গেলে জয়ের রাস্তায় ফিরতেই হবে ইস্টবেঙ্গলকে। শনিবার লড়াই সেই পাহাড়ে। প্রতিপক্ষ আইজল এফ সি। আইজল লিগ টেবিলের শেষ স্থানে। তাই অ্যাওয়ে ম্যাচ হলেও জয় ছাড়া কিছুই ভাবছেন না ইস্টবেঙ্গল কোচ।


প্রথম তিনটি ম্যাচেই মাঝমাঠের সমস্যায় ভুগেছে ইস্টবেঙ্গল। চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধেও হারতে হয়েছে মাঝমাঠের সমস্যাতেই। তবে আইজলের বিরুদ্ধেও মাঝমাঠে তেমন কোনও পরিবর্তনের সম্ভাবনা নেই। কমলপ্রীতের জায়গায় কাশিম আইডারার প্রথম একাদশে আসার সম্ভাবনাও কম। তবে রক্ষণ ভাগে হয়তো পরিবর্তন আসতে চলেছে। সামাদ আলি মল্লিকের জায়গায় দলে ঢোকার সম্ভাবনা সালাম রঞ্জন সিংয়ের। শুক্রবার মূল স্টেডিয়ামে সাড়ে দশটা থেকে ঘণ্টা খানেক অনুশীলন করে ইস্টবেঙ্গল। রীতিমতো তাড়াহুড়ো করেই অনুশীলন শেষ করে হোটেলের পথ ধরেন এনরিকেরা। প্রধানমন্ত্রীর সফরের জন্য আইজল জুড়েই নিরাপত্তার কড়াকড়ি। অনেক রাস্তা বন্ধ করে দিচ্ছিল পুলিশ। অথবা গাড়ি ঘুরিয়ে দিচ্ছিল। তাই অনুশীলন শেষ করে কোনোমতে হোটেলে ফেরেন ফুটবলাররা।


সারাদিনে হোটেল থেকে খুব একটা বেরোননি ফুটবলাররা। রাতে ডিনারের পর দীর্ঘ টিম মিটিং সারেন ইস্টবেঙ্গল কোচ আলেজান্দ্রো। সেখানেই আইজল এফ সি-র শক্তি-দূর্বলতা নিয়ে ফুটবলারদের সঙ্গে আলোচনা সারেন তিনি। সাংবাদিক সম্মেলনে আলেজান্দ্রো বলেছেন, ‘আমরা প্রথম থেকেই জেতার জন্য খেলব। আমরা শেষ ম্যাচ হেরে গেলেও ভালোই খেলেছিলাম। তাই আমরা আইজলের বিরুদ্ধে জিততেই পারি। এনরিকের ফিটনেস নিয়ে কোনও সমস্যা নেই। ও খেলার জন্য তৈরি।’ মাঝমাঠ নিয়ে বারবার অভিযোগ উঠলেও তা মানতে রাজি নন আলেজান্দ্রো। তিনি বলছেন, ‘আমরা অনেক গোলের সুযোগ তৈরি করছি। সেগুলো শুধু কাজে লাগাতে হবে। আর আমরা তিন ম্যাচে ছয় টা গোল করেছি। তাই মনে হয় না মাঝমাঠ নিয়ে কোনও সমস্যা আছে।’ ভারতীয় ফুটবল নিয়ে আলেজান্দ্রো বলছেন, ‘আমার মনে হয় ভারতীয় ফুটবলারদের মানসিকতা কিছুটা আলাদা। আমাদের কোচিং নেওয়ার পদ্ধতিও। আমাদেরও ভারতীয় ফুটবলের সঙ্গে মানিয়ে নিতে হবে। এটা একটটা লম্বা প্রক্রিয়া এবং ভবিষ্যতে ভালো কিছু করার স্বপ্নেই আমরা এগিয়ে যাচ্ছি।’ আইজল অবশ্য ইস্টবেঙ্গল ম্যাচে পাবে না তাদের দুই গুরুত্বপূর্ণ ফুটবলার করিম এবং গোবিন সিংকে।
আইজল এফ সি – ইস্টবেঙ্গল
দুপুর ২টা (আইজল)

Post a Comment

0 Comments