ব্রিটিশদের কাছে আত্মসমর্পণ হরমনপ্রিতদের, বিশ্বকাপ থেকে বিদায় ভারতের

সীমিত ওভারের বিশ্বকাপের পর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও। সেই এক প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড। শুক্রবার অ্যান্টিগায় ব্রিটিশদের কাছে সেমিফাইনালে হেরে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিলেন হরমনপ্রিতরা। গতবছর বিশ্বকাপের ফাইনালে হারের বদলা নেওয়া হল না। ইংরেজদের কাছে রীতিমতো আত্মসমর্পণ করে হারল ভারতীয় ক্রিকেট দল। প্রথমে ব্যাট করে ১৯.২ ওভারে মাত্র ১১২ রানে অলআউট হয়ে যায় ভারতীয়রা। জবাবে ১৭.১ ওভারে ২ উইকেট খুইয়ে জয়ের রান তুলে নেয় ইংল্যান্ড। গোটা টুর্নামেন্টে অপরাজিত থাকা ভারত সেমিফাইনালে সব বিভাগেই ব্যর্থ। তারই ফলপ্রসু ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ৮ উইকেটে শোচনীয় হার। অন্য সেমিফাইনালে গতবারের চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে ফাইনালে উঠল অস্ট্রেলিয়া। ফাইনালে ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়ার ঐতিহাসিক দ্বৈরথ দেখা যাবে।


এদিন ভারতীয় ক্রিকেট দলের সবচেয়ে আলোচ্য সিদ্ধান্ত হল প্রাক্তন অধিনায়ক মিতালি রাজকে প্রথম একাদশে না রাখা। সদ্য রোহিত শর্মাকে ছাপিয়ে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ইতিহাসে সর্বোচ্চ রানের মালকিন হয়েছেন মিতালি। টুর্নামেন্টেও রীতিমতো ফর্মে থাকা মিতালিকে কেন সেমিফাইনালের মতো ডু অর ডাই ম্যাচে বসানো হল তা নিয়ে পরে হয়তো বিস্তর কাটাছেঁড়া হবে। একইসঙ্গে উপমহাদেশের স্পিনিং পিচে খেলতে অভ্যস্ত ভারতীয় ক্রিকেটাররা ব্রিটিশদের স্পিনে কাবু হয়ে গেলেন তাও ভাবার বিষয়। দুর্দান্ত বোলিং ইংল্যান্ড অধিনায়ক হেথার নাইটের। তাঁর অফ স্পিনে নাস্তানাবুদ হয়ে যান হরমনপ্রিতরা। মাত্র ৯ রান দিয়ে ৩টি মূল্যবান উইকেট তুলে নেন তিনি। তাঁকে যোগ্য সঙ্গত দেন কার্স্টি গর্ডন (২/২২) এবং সোফি একলেস্টোন (২/২২)। তিন স্পিনারের ছোবলে ১১২ রানে গুটিয়ে যায় ভারতীয় ইনিংস। একমাত্র ওপেনার স্মৃতি মান্দানা (৩৩) চেষ্টা করেছিলেন স্কোরকে ভদ্রস্থ জায়গায় পৌঁছে দেওয়ার। কিন্তু অন্য প্রান্তে একের পর এক উইকেটের পতন রোখা যায়নি। ৭ জন ক্রিকেটার দুই অঙ্কের রান করতে ব্যর্থ হন। অধিনায়ক হরমনপ্রিত করেন ১৬ রান।

১১২ রান তাড়া করতে নেমে খুব একটা সমস্যায় পড়তে হয়নি ব্রিটিশদের। তৃতীয় উইকেটের পার্টনারশিপে ৯২ রান তোলেন এমি জোনস (৫৩) ও নাটালি শিভার (৫২)। হাসতে হাসতেই ৮ উইকেটে ম্যাচ জিতে যায় ইংল্যান্ড। ম্যাচের পর বিশেষজ্ঞদের মত, ব্রিটিশ স্পিনারদের বিরুদ্ধে মিতালির মতো অভিজ্ঞ ক্রিকেটারকে না খেলানোর সিদ্ধান্ত ব্যুমেরাং হয়েছে ভারতের। এর জন্য বহুদিন আফসোস করতে হবে টিম ম্যানেজমেন্টকে।

Post a Comment

0 Comments