ছত্তিশগড়ে মহিলাদের ভোট বিজেপি’র বিরুদ্ধেই

পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা ভোটের ফলাফল বিশ্লেষণ করলে মহিলা ভোটার, মহিলা প্রার্থীদের মধ্যে এক পরস্পর বিপরীতধর্মী ছবি ধরা পড়েছে। বিশেষত, ছত্তিশগড়, মিজোরাম এবং রাজস্থানে। ছত্তিশগড়ে যেখানে মহিলা ভোটারের সংখ্যা বেশি ছিল, সেখানে হেরে গিয়েছে বিজেপি। আবার উত্তর-পূর্ব ভারতের মিজোরাম বিধানসভায় একজনও মহিলা বিধায়ক স্থান পেলেন না। অন্যদিকে, রাজস্থানে জয়ী হয়েছেন ২২জন মহিলা। এই তিনটি ছবির মধ্যে বিরোধীদের মূল হাতিয়ার হয়ে উঠেছে অবশ্যই ছত্তিশগড়ের চিত্র। মহিলারা গেরুয়া শিবিরের উপর ভরসা রাখতে পারেননি বলে কটাক্ষ শুরু করেছেন বিরোধীরা।

ছত্তিশগড়ের ২৩টি নির্বাচনী কেন্দ্রে পুরুষদের তুলনায় মহিলা ভোটারের সংখ্যা ছিল বেশি। এই প্রত্যেকটি কেন্দ্রেই ভরাডুবি হয়েছে বিজেপি-র। চড়চড়িয়ে বেড়েছে কংগ্রেসের ভোট। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, কংগ্রেস তার নির্বাচনী প্রচারে মদের উপর নিষেধাজ্ঞা জারির বিষয়টি উল্লেখ করেছিল। কংগ্রেসের প্রতিশ্রুতি, তারা ক্ষমতায় এসে মদের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করবে। এই আশ্বাসের ফলেই অধিকাংশ মহিলা কংগ্রেসকেই ভোট দিয়েছেন বলে মনে করা হচ্ছে। তবে এই ২৩টি নির্বাচনী কেন্দ্রের ২০টি’তে কংগ্রেস জিতলেও বাকি তিনটে গিয়েছে জনতা কংগ্রেস ছত্তিশগড়-বিএসপি জোটের দখলে। ছত্তিশগড়ের খারসিয়াতে সবথেকে বেশি সংখ্যক মহিলা ভোটার, প্রায় ৮৭ শতাংশ। সেখানে বিজেপি প্রার্থী কমপক্ষে ১৭হাজার ভোটের ব্যবধানে কংগ্রেস প্রার্থীর কাছে হেরে গিয়েছেন।

এদিকে, মিজোরামে এবারের বিধানসভায় জিততে পারেননি কোনও মহিলা প্রার্থীই। তার জেরে এবারের মিজোরাম বিধানসভায় কোনও মহিলা বিধায়কই নেই। উল্লেখযোগ্যভাবে, ২০৯ জন প্রার্থীর মধ্যে মাত্র ১৫জনই মহিলা ছিলেন। ছ’লক্ষ ভোটারের মধ্যে তিন লক্ষের বেশি মহিলা হলেও মহিলা প্রার্থীদের ভোটের ভাঁড়ার ভরেনি। এক্ষেত্রে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলেছেন, অধিকাংশ শীর্ষস্থানীয় দলই ভোটে মহিলা প্রার্থী দাঁড় করাতে চায়নি।

উলটোদিকে রাজস্থানে অবশ্য ২২জন মহিলা প্রার্থী জিতেছেন বিধানসভা নির্বাচনে। ১৮৭জন মহিলা প্রার্থী এবার সেখানে ভোটে লড়েছেন।

Post a Comment

0 Comments