চোকসির বিরুদ্ধে রেড কর্নার নোটিস ইন্টারপোলের

সিবিআইয়ের আবেদনে সাড়া দিয়ে মেহুল চোকসির বিরুদ্ধে রেড কর্নার নোটিস জারি করল ইন্টারপোল। পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাংকের ১৩ হাজার কোটি টাকার কেলেঙ্কারিতে অভিযুক্ত মেহুল চোকসি ও তাঁর ভাগ্নে নীরব মোদি। এই বছর জানুয়ারিতে দেশ ছেড়ে পালিয়ে অ্যান্টিগুয়ার নাগরিকত্ব নিয়েছেন চোকসি।

বৃহস্পতিবার সিবিআই মুখপাত্র অভিষেক দয়াল বলেন, “সিবিআইয়ের অনুরোধ রেখে মেহুল চোকসির বিরুদ্ধে রেড কর্নার নোটিস জারি করেছে ইন্টারপোল।” সূত্রের খবর, চোকসি জানিয়েছে রাজনৈতিক চাপেই তাঁর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চলেছে। ভারতের সংশোধনাগারের খারাপ অবস্থা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন চোকসি। ইন্টারপোলের পাঁচ সদস্যের আদালতে মেহুল চোকসির বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়। তারপরই রেড কর্নার নোটিস জারি করা হয়। এই নোটিস জারি করা হলে আন্তর্জাতিক অপরাধী হিসেবে পরোয়ানা জারি করা সম্ভব হয়। অপরাধী যে দেশে গিয়ে আশ্রয় নিয়েছে, তাকে গ্রেপ্তার বা আটক করার জন্য সংশ্লিষ্ট দেশকে অনুরোধ করে ইন্টারপোল। পিএনবি কেলেঙ্কারি মামলায় তদন্তকারী অফিসাররা মেহুল চোকসি ও নীরব মোদিকে লেটার অফ আন্ডারটেকিং ও ফরেন লেটার্স অফ ক্রেডিটের ভিত্তিতে ইন্টারপোলের কাছে আবেদন করেন।

পিএনবি কেলেঙ্কারি মামলায় নীরব মোদির নামে ৬০০০ কোটি ও মেহুল চোকসির বিরুদ্ধে ৭০৮০ কোটি টাকার কেলেঙ্কারির অভিযোগ আছে। সব মিলিয়ে ১৩ হাজার কোটি টাকার ব্যাংক কেলেঙ্কারি হয়। এছাড়া চোকসির সংস্থার বিরুদ্ধে আরও ৬০০০ কোটি টাকা তছরুপের তদন্ত চালাচ্ছে সিবিআই। পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাংকের গ্যারান্টি রেখে বিদেশি ব্যাংক থেকে কোটি কোটি টাকা ঋণ নিয়েছিল এই নীরব ও চোকসির সংস্থা। সিবিআই সূত্রে খবর, পিএনবি ব্যাংকের কর্মী গোকুলনাথ শেট্টি এই কাজে নীরব মোদি ও মেহুল চোকসিকে সাহায্য করেন।

Post a Comment

0 Comments