পুরুষাঙ্গের মাপ দেখেই দলের ফুটবলার বাছেন এই মহিলা কোচ!

পুরুষাঙ্গের মাপ দেখে তবেই দলের ফুটবলার বাছেন! লিঙ্গবৈষম্য নিয়ে প্রশ্ন ধেয়ে আসতেই সাংবাদিকদের একহাত নিলেন জার্মানের মহিলা ফুটবল কোচ। জার্মানের পঞ্চম ডিভিশন ফুটবল লিগে প্রথম মহিলা কোচ হিসেবে নিয়োজিত হন ইমকে উবেনহোর্স্ট। দলের নাম বিভি ক্লোপেনবার্গ। লিঙ্গবৈষম্যমূলক প্রশ্ন ধেয়ে আসতে এভাবেই সামলে নিলেন ইমকে।


জার্মানের ফুটবল ক্লাব ক্লোপেনবার্গের ম্যানেজার ইমকে। টিমে ১৫ জন পুরুষ ফুটবলার। একা মহিলা হয়ে কীভাবে সামলান? সাংবাদিকদের প্রশ্নে মাথা ঠিক রাখতে পারেননি ইমকে। বলেন, “আমি পেশাদার কোচ। পুরুষাঙ্গের মাপ দেখেই টিমে ফুটবলার বাছাই করি।” এর আগেও মহিলা কোচকে লিঙ্গবৈষম্যমূলক মন্তব্যের শিকার হতে হয়েছে। সুইডেনের এক ফুটবল টিমের কোচ ছিলেন পিয়া সুন্ধাগে। তাঁকেও এই ধরনের প্রশ্নের সামনে পড়তে হয়েছিল। একজন মেয়ে হয়ে কীভাবে ছেলেদের একটা গোটা দল চালান! এরকম প্রশ্ন শুনেই ইমকে জানালেন, জার্মান চ্যান্সেলার অ্যাঞ্জেলা মার্কেল গোটা দেশ চালাচ্ছেন। তাহলে তিনি কেন পারবেন না!

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র টিমের মহিলা কোচ ছিলেন ইমকে। কোচ হিসেবে দু’বার অলিম্পিকে সোনা জিতেছে তাঁর দল। তাঁর মতো কোচের কাছে এই ধরনের লিঙ্গবৈষম্যমূলক প্রশ্ন শুনে জোর চটেছে বিভি ক্লোপেনবার্গ কর্তৃপক্ষ। টিম বোর্ডের সদস্য হার্বার্ট শোডের বলেন, “লিঙ্গবৈষম্যের প্রশ্ন তোলা খুব সহজ। কিন্তু আমরা সব সময় গুণগত মান দিয়েই বিচার করি।” ইমকের বয়স মাত্র ৩০। এর আগে মেয়েদের টিম পরিচালনা করতেন। ক্লাবের অনুরোধে ছেলেদের দল পরিচালনা করছেন তিনি।

Post a Comment

0 Comments