৫০ বছরের মধ্যেই অবলুপ্ত হতে পারে রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার

 রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার। গোটা বিশ্ব যাকে এক নামে চেনে। বলা ভাল, গোটা বিশ্বের কাছে বাংলার পরিচয়বাহক। সেই রয়্যাল বেঙ্গল টাইগারই এবার অস্তিত্বের সংকটে, বিপন্ন হওয়ার মুখে। গোটা বিশ্বের জলবায়ুর পরিবর্তনের প্রভাব পড়ছে বঙ্গোপসাগরে, তথা সুন্দরবনে। আর সেটাই মানিয়ে নিতে পারছে না রয়্যাল বেঙ্গল। ক্রমশ দুর্বল হয়ে পড়ছে বাংলার গর্ব। কমছে প্রজনন শক্তিও। প্রতিকূল পরিস্থিতির সঙ্গে খাপ খাইয়ে নেওয়ার ক্ষমতা ক্রমে হারিয়ে ফেলছে এই বিলুপ্তপ্রায় প্রাণীটি। একটি গবেষণায় উঠে এসেছে এমনই উদ্বেগজনক তথ্য।


আবহাওয়ার পরিবর্তন এবং সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধি। মূলত এই দুই কারণেই ক্রমশন গুটিয়ে আসছে রয়্যাল বেঙ্গল টাইগারের প্রজনন ক্ষেত্র। কমছে প্রজনন ক্ষমতাও। আর যে কারণে, পৃথিবীর বুক থেকে নিশ্চিহ্ন হওয়ার মুখে বাংলার বাঘ। আর তাও মাত্র ৫০ বছরের মধ্যে। সোমবার রাষ্ট্রসংঘের তরফে এক রিপোর্টে জানানো হয়েছে, সুন্দরবনে যেভাবে রয়্যাল বেঙ্গলের সংখ্যা কমছে, তাতে ২০৭০ সালের মধ্যে এই প্রজাতিটি সম্পূর্ণ বিলুপ্ত হয়ে যেতে পারে। আবহাওয়ার মাত্রাছাড়া পরিবর্তনের জেরে বিপন্ন হয়েছে ভারত ও বাংলাদেশ মিলিয়ে ৪০০০ বর্গ মাইল এলাকাজুড়ে থাকা সুন্দরবনে আশ্রিত বিভিন্ন প্রাণীর প্রজাতি। আবহাওয়া পরিবর্তন সংক্রান্ত প্যানেল থেকে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে তৈরি রিপোর্টে জানানো হয়েছে, ২০৭০ সালের মধ্যে বাংলাদেশের সুন্দরবনে বাঘের বসবাসের উপযুক্ত কোনও বনভূমি অবশিষ্ট থাকবে না।
ফলে ক্রমাগত একই অঞ্চলে আবদ্ধ থেকে পরিবর্তিত স্থান বা পরিস্থিতিতে খাপ খাইয়ে নেওয়ার ক্ষমতা হারাচ্ছে বাঘেরা। তাদের জিনেও এই পরিবর্তন ধরা পড়েছে।সুন্দরবনের চারপাশে যেভাবে শিল্পকারখানা হচ্ছে, তাতে নৌ পরিবহণ আরও বাড়বে। নৌ চলাচল নিয়ন্ত্রণে আনা না গেলে বাঘেদের বিচরণ আরও সীমিত হবে ও প্রাণীটি জিনগতভাবে আরও দুর্বল হয়ে পড়বে।

Post a Comment

0 Comments