এক দেশ এক পতাকা’ ফুৎকারে উড়িয়ে নাগাল্যান্ডে উড়ল নাগাদের নিজস্ব পতাকা

ভারতের স্বাধীনতা দিবসের একদিন আগে ১৪ আগস্ট মণিপুরে পালিত হল নাগাল্যান্ডের ৭৩তম স্বাধীনতা দিবস। রাজ্যের বিভিন্ন অঞ্চলে নাগাদের জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে এবং জাতীয় সঙ্গীত গেয়ে উদযাপিত হয় নাগা স্বাধীনতা দিবস।


নাগা স্বাধীনতা দিবসের সবথেকে বড় অনুষ্ঠান হয় মণিপুরের সেনাপতি জেলায়। নাগাদের শীর্ষ নেতৃত্ব ইউনাইটেড নাগা কাউন্সিল (ইউএনসি) আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে প্রথমবার কোনও সর্বজনীন অনুষ্ঠানে উত্তোলিত হয় নাগা পতাকা। এছাড়া, কাটোপেই মাঠে নাগা পিপল্স অর্গানাইজেশন (এনপিও) আয়োজিত অনুষ্ঠানে শুধু রাজ্যের বিভিন্ন অঞ্চলই নয়, মায়ানমার থেকেও নাগা অধিবাসীরা এসেছিলেন অংশগ্রহণ করার জন্য। অনুষ্ঠানের থিম ছিল ‘ওয়ান গোল, ওয়ান ডেস্টিনি’ (এক লক্ষ্য, এক গন্তব্য)। অনুষ্ঠান শুরু হয়েছিল নাগাদের জাতীয় আন্দোলনের মহাসচিব নেইনগুলো ক্রোমের হাতে নাগাদের জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে। এরপর বিভিন্ন নেতাদের বক্তৃতার পর গাওয়া হয় নাগাদের জাতীয় সঙ্গীত।

১৯৪৭ সালের ১৪ আগস্ট নাগাদের এক বিদ্রোহী নেতা এই দিনটিকে নাগা স্বাধীনতা দিবস বলে ঘোষণা করেন। সেই থেকে বিচ্ছিন্নভাবে পালিত হত এই দিনটি। কিন্তু এবার এত মানুষ আসার পেছনে যে জম্মু-কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা অবলুপ্তির একটা সংযোগ রয়েছে, সেটা স্পষ্ট নেইনগুলো ক্রোমের কথায়। এই বছর ঐতিহাসিক ভাবে পালিত হয়েছে নাগা স্বাধীনতা দিবস, জানালেন ক্রোম। এত মানুষের সমাগম এটাই প্রমাণ করছে, যে ভারত সরকারের অনিশ্চিত নীতিতে ধৈর্য হারিয়েছে নাগারা। নাগাল্যান্ডের ২০টা গোষ্ঠীর শীর্ষ নেতৃত্ব ছাড়াও নাগাদের সমস্ত জনগোষ্ঠী এবং ছাত্রগোষ্ঠীর নেতারা অংশগ্রহণ করেন এই অনুষ্ঠানে। বিভিন্ন বক্তব্য এবং ভিডিওর মাধ্যমে নাগারা জানাচ্ছেন, তাঁরা ভারতীয় নন এবং নাগাল্যান্ড ভারত নয়।

Post a Comment

0 Comments