ধসে যেতে পারে দেশের অর্থনীতি - এমন মন্দা খুবই উদ্বেগজনক - রঘুরাম রাজন

দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করলেন রিজার্ভ ব্যাঙ্কের প্রাক্তন গভর্নর রঘুরাম রাজন। তাঁর কথায়, সরকার খুব দ্রুত পদক্ষেপ না নিলে ভবিষ্যতে কঠিন সমস্যার মুখোমুখি হতে হবে। দেশের অর্থনৈতিক পরিস্থিতি একেবারে ধসে যাবে বলে অনুমান করেন তিনি।


একটি সংবাদমাধ‍্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে রঘুরাম রাজন বলেন, "ভারতের অর্থনৈতিক বৃদ্ধির হার ২০১৮-১৯ সালে ৬.৮ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। ২০১৪-১৫ সালের পর যা সবচেয়ে ধীর গতির। বিভিন্ন বেসরকারি বিশেষজ্ঞ এবং কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্কের অনুমান যে চলতি বছরের জিডিপি সরকারের অনুমানের (৭%) থেকে কম হবে।

বিভিন্ন বেসরকারি বিশেষজ্ঞরা বিভিন্ন খাতে যা অনুমান করেছেন, তার অনেকগুলোই সরকারের অনুমানের থেকে নীচে এবং আমি মনে করি অর্থনীতিতে এমন মন্দা খুবই উদ্বেগজনক।"

অটোমোবাইল ও আনুষঙ্গিক শিল্পে গত কয়েক বছরে হাজার-হাজার মানুষ কাজ হারিয়েছে। দেশের আবাসন শিল্পও ধ্বংসের মুখে। এসবের কথা উল্লেখ করে RBI-এর প্রাক্তন গভর্নর বলেন, "আমাদের ভারতের কী প্রয়োজন তা নিয়ে আমাদের স্বচ্ছভাবে ভাবনাচিন্তার দরকার এবং আমার বলতে ভালো লাগছে যে অর্থনীতি আমাদের দরকার তা আমাদের কাছে রয়েছে। এখানে অর্থনীতির কোনো সংস্কার হয়না।"

প্রসঙ্গত, জুন ২০১৯-এর পরিসংখ্যান অনুযায়ী দেশে শিল্প উৎপাদনের হার কমে দাঁড়িয়েছে ২ শতাংশে। গত বছর জুন মাসে যা ছিল ৭ শতাংশ। ম‍্যানুফ‍্যাকচারিং শিল্পে গত বছরে ৬.৯ শতাংশ থেকে নেমে এবছর হয়েছে ১.২ শতাংশ। খনি শিল্পে বৃদ্ধির হার ৬.৫ শতাংশ থেকে এবছর হয়েছে ১.৬ শতাংশ।

পরিস্থিতি পরিবর্তন না হলে ভারতের ভবিষ্যত সম্পর্কে সংশয় প্রকাশ করেছেন তিনি। ২০০৮ সালের মেল্টডাউনের পুনরাবৃত্তি করে রঘুরাম রাজন জানান, "আমি কি কোনো বড় আশঙ্কার পূর্বাভাস দিচ্ছি? আমি জানি না তবে আমার মনে হয় বিভিন্ন দিক থেকে এই আশঙ্কা সত্যি হবে। কেবল পুরোনো সমস্যাগুলোর সমাধান করে নতুন সমস‍্যাগুলো রোধ করা যাবে না। অর্থনীতি ও প্রবৃদ্ধির হার বাড়ানোর জন্য এখনই গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ নেওয়া দরকার।"

Post a Comment

0 Comments