নতুন ধরণের প্রতারণার বিষয়ে ব্যবহারকারীদের সতর্ক করল Paytm

দেশজুড়ে অনলাইন লেনদেন বৃদ্ধির সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে প্রতারণা। এবার এক নতুন ধরণের প্রতারণার বিষয়ে ব্যবহারকারীদের সতর্ক করল অনলাইন লেনদেনের অ্যাপ Paytm। নতুন ব্যবহারকারীরা KYC ফিল-আপের সময়ে যাতে কোনও প্রতারণার শিকার না হন, সে বিষয়ে সাবধান করল সংস্থাটি।


নতুন ধরনের প্রতারণায় কোনও থার্ড পার্টি অ্যাপের মাধ্যমে ফিশিং পদ্ধতিতে হাতিয়ে নেওয়া হচ্ছে ব্যবহারকারীদের টাকা। প্রথমে ফোন করে নিজেদের Paytm-এর কাস্টমার কেয়ার বলে দাবি করছে প্রতারকরা। তারপর ব্যবহারকারীদের স্মার্টফোনে AnyDesk বা QuickSupport জাতীয় কোনও অ্যাপ ডাউনলোড করতে বলছে তারা। ব্যবহারকারীরা অ্যাপ ইনস্টল করলে সেই অ্যাপের কোড জানতে চাইছে প্রতারকরা। এই কোডের মাধ্যমেই ব্যবহারকারীর ফোন চলে যাচ্ছে প্রতারকদের নিয়ন্ত্রণে। ফলে, Paytm-এ লগ ইন করার সময়ে পাসওয়ার্ড সহ ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের তথ্যাবলী চলে যাচ্ছে প্রতারকদের হাতে।

AnyDesk বা QuickSupport জাতীয় অ্যাপের মাধ্যমে একটি ফোন বা কম্পিউটার থেকে অপর একটি ফোনে নজরদারি চালানো সম্ভব। ইনস্টল করার পর অ্যাপের মধ্যেই জেনারেট হয় একটি বিশেষ অ্যাকসেস কোড। এই কোড ব্যবহার করে ফোন বা কম্পিউটার থেকে ব্যবহারকারীর ফোনের নিয়ন্ত্রণ পাওয়া সম্ভব। ব্যবহারকারী ফোনে কি করছেন, তা দেখা যাবে অন্য ফোন বা কম্পিউটার থেকেই।

এই প্রযুক্তিকেই হাতিয়ার করেই প্রতারণার জাল বিছিয়েছে প্রতারকরা। অ্যাপের মাধ্যমে পাসওয়ার্ড, ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট-সহ একাধিক গোপন তথ্য চলে যাচ্ছে প্রতারকদের হাতে। এর পর সুযোগ বুঝে ব্যবহারকারীদের অ্যাকাউন্ট থেকে হাতিয়ে নেওয়া হচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা।

শুধু Paytm-ই নয়, চলতি বছরের শুরুতেই ফিশিং অ্যাপের মাধ্যমে জোচ্চুরির বিষয়ে সাবধান করে দিয়েছিল কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক। এইচডিএফসি, অ্যাক্সিস ব্যাঙ্ক ও অন্যান্য ব্যাঙ্কগুলিও এই ধরনের প্রতারণার বিষয়ে গ্রাহকদের সতর্ক করে দেয়। বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ, কাস্টমার কেয়ার বলে দাবি করলেও ফোনে কখনই ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের তথ্য জানানো উচিত নয়। তার সঙ্গে ফোনে কোনও অজানা অ্যাপ ডাউনলোড না করাই ভাল। হোয়াটস্যাপ বা ইমেলে আসা অজানা লিঙ্ক এড়িয়ে যাওয়াই বুদ্ধিমানের কাজ।

Post a Comment

0 Comments