৭৪-এ প্রথমবার যমজ সন্তানের জন্ম দিলেন ইনি!

বিয়ে করেছিলেন ১৯৬২ সালের ২২ মার্চ। ৫৭ বছর ধরে নিঃসন্তান ছিলেন মাঙ্গায়াম্মা ও রাজা রাও। তবে সবচেয়ে বেশি বয়সে সন্তান প্রসব করে রেকর্ড গড়লেন ৭৪ বছর বয়সি এই মহিলা। আইভিএফের মাধ্যমে জন্ম দিলেন যমজ শিশুকন্যার। শেষমেশ প্রমাণ করলেন, বয়স একটি সংখ্যামাত্র।

বৃহস্পতিবার অন্ধ্রপ্রদেশের গুন্টুর জেলার ঘটনা। এতদিন পর্যন্ত ভারতে সবচেয়ে বেশি বয়সে মা হয়ে রেকর্ড গড়েছিলেন পঞ্জাবের দলজিন্দর কৌর। সেইসনয় তাঁর বয়স চিল ৭০ বছর।

৮০ বছরের ই রাজা রাও-র স্ত্রী ইরামাট্টি মাঙ্গায়াম্মা। পূর্ব গোদাবরী জেলার নেলাপর্থীপাড়ু জেলার বাসিন্দা। এদিন কোথাপেটের অহল্যা হাসপাতালে জন্ম দেন যমজ সন্তানের। চিকিত্‍সরা জানিয়েছেন, সিজার অপারেশন শেষ হয়েছিল ভালোভাবেই। কিন্তু পরে মা ও শিশুদের শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে শুরু করলে তাঁদেরকে কয়েক ঘন্টার জন্য আইসিইউতে ভর্তি করতে হয়। তবে মা ও শিশুরা দুজনেই এখন সুস্থ রয়েছেন বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের ডিরেক্টর ড. উমাশংকর।

এই বিরল ঘটনার সাক্ষী থাকতে পেরে উচ্ছ্বসিত চিকিত্‍সকরা। সবচেয়ে বেশি খুশি হয়েছেন এই বৃদ্ধ দম্পতি। তাঁদের আনন্দের বাঁধ মানছে না। ড. উমাশংকর জানিয়েছেন, সদ্য মা হয়েছেন মাঙ্গায়াম্মা। তবে তাঁর মা না হওয়ার কোনও কারণ ছিল না। বেশি বয়সে শিশু প্রসব করার কোনও সমস্যাও ছিল না তাঁর। এমনকি শরীরে বাসা বাঁধেনি ডায়াবেটিস বা উচ্চ রক্তচাপ জনিত কোনও রোগ। তবে পোস্ট ডেলিভারির পর কিছু সমস্যা দেখা দিতে পারে তাঁর শরীরে। সবচেয়ে উলেলখযোগ্য হল, তিনি সন্তানদের মাতৃদুগ্ধ পান করাতে পারবেন না।

তিনি আরও জানান, ২৫ বছর আগে মেনোপজ হলেও মাঙ্গায়াম্মার বিশ্বাস ছিল তিনি মা হতে পারবেন। আইভিএফের সাহায্যে প্রতিবেশী এক মহিলা ৫৫ বছর বয়সে মা হতে পেরে তাঁর এই ইচ্ছা আরও জোড়ালো হয়ে ওঠে। তাঁর এই ইচ্ছাশক্তি দেখে আমরা সকলেই তাজ্জব বনে গিয়েছিলাম। আমরা তাঁকে সবরকম টেস্ট করে দেখি, যে তিনি মা হওয়ার জন্য একদম উপযুক্ত। কনসিভ করার জন্য মেডিক্যালি ফিট ছিলেন এই কৃষক মহিলা। প্রথম সাইকেলেই তিনি কনসিভ করেছেন। চলতি বছরের জানুয়ারিতে তিনি প্রেগন্যান্ট হন।

Post a Comment

0 Comments