"দুটোই পারমাণবিক শক্তিধর দেশ": চতুর্থবার মধ্যস্থতার প্রস্তাব

এবার কাশ্মীর ইস্যুর আঁচ টের পেলেন মার্কিন প্রেসিডেন্টও। ডোনাল্ড ট্রাম্পের মতে কাশ্মীর ইস্যুটি নিয়ে সাংঘাতিক উত্তেজনা দানা বেঁধেছে ভারত ও পাকিস্তানের (India-Pak Ties) মধ্যে। দুই প্রতিবেশী দেশের মধ্যে বিষয়টি মীমাংসার জন্য তিনি "যা কিছু করতে পারেন" তাই করবেন বলে মন্তব্য (Trump on Kashmir) করেছেন তিনি। তবে  রাষ্ট্রসংঘের সাধারণ অধিবেশনের পাশাপাশি ভারত ও পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে "অত্যন্ত ফলপ্রসূ আলোচনা" হয়েছে বলে দাবি করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। "পাকিস্তান ও ভারতের সঙ্গে আমরা কাশ্মীর নিয়ে অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়েই আলোচনা করেছি। আমি প্রস্তাব দিয়েছিলাম যে এর সালিশি হোক বা মধ্যস্থতা হোক। এ নিয়ে আমার যতটা করা সম্ভব ততটা করব। কারণ আমি বুঝতে পারছি কাশ্মীর নিয়ে দুই দেশই এই মুহুর্তে মারাত্মক মতবিরোধের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। তবে আমি আশা করছি যে খুব তাড়াতাড়ি এর সমাধান হবে", এক সাংবাদিক সম্মেলনে এ কথা বলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। যদিও কাশ্মীর ইস্যুতে অনড় ভারত (India On Kashmir), এর আগেও দেশ জানিয়েছে, এই বিষয়টি নিয়ে তৃতীয় পক্ষের মধ্যস্থতার কোনও প্রয়োজন নেই।

"দু'জন ভদ্রলোক ওই দুই দেশের নেতৃত্ব দিচ্ছেন ... এবং তাঁরা দুজনেই আমার দু'জন ভালো বন্ধু। আমি বলেছিলাম, দুই দেশের মধ্যে আমার মধ্যস্থতা কার্যকরী হবে। মনে রাখতে হবে দুটিই পারমাণবিক শক্তিধর দেশ, মধ্যস্থতা করলে তা কার্যকর হবে" ফের বলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প একাধিকবার ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে মত পার্থক্য নিরসনে সহায়তা করার জন্য প্রস্তাব দিয়েছেন, যে প্রস্তাবের তীব্র বিরোধিতা করেছে নয়াদিল্লি । মঙ্গলবার নিউইয়র্কে দ্বিপাক্ষিক আলোচনার জন্য প্রধানমন্ত্রী মোদির সঙ্গে সাক্ষাতের কয়েক ঘণ্টা আগে মধ্যস্থতায় চতুর্থ প্রস্তাবটি আসে, প্রধানমন্ত্রী মোদির দ্বিতীয় মেয়াদ জয়ের পরে দুই নেতার মধ্যে এই নিয়ে চতুর্থবার বৈঠক হয়।

"যদি ভারত ও পাকিস্তান দুই দেশই একমত হয় তবে আমি অবশ্যই তাঁদের সাহায্য করতে ইচ্ছুক। আমি মনে করি একটি নির্দিষ্ট উপায়ে তাঁরাও আমার সাহায্য চাইবে। তবে দুই দেশ চাইলে তবেই এটি হবে । তাঁদের অনেক বিষয়ে মতপার্থক্য আছে", মঙ্গলবার পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে রাষ্ট্রসংঘের সাধারণ অধিবেশনের সভাপতির বৈঠক শেষেও বলেছিলেন ট্রাম্প । এর আগে জুলাইয়ে ইমরান খানকে সঙ্গে নিয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করার সময়েও কাশ্মীর নিয়ে তাঁর মধ্যস্থতা করার বিষয়ে প্রথম প্রস্তাব দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট । তবে ভারত আগেও বারবার এই মধ্য়স্থতার প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছে।

ট্রাম্পের সর্বশেষ বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় কেন্দ্রীয় বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র রবীশ কুমার বৃহস্পতিবার সকালে মধ্যস্থতা বিষয়ে ভারতের অবস্থানে এখনও কোনও পরিবর্তন হয়নি বলে জানিয়েছেন। তিনি বলেন, "আমি মনে করি এর আগে এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীও আগে যা বলার বলেছেন। এমনকি বিদেশ সচিবও এই বিষয়ে স্পষ্টভাবে দেশের অবস্থান জানিয়েছেন"।

Post a Comment

0 Comments