আসানসোলে ছেলেধরা সন্দেহে এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে মারল উন্মত্ত জনতা

Thebengalnews Portal:ছেলেধরা সন্দেহে এক যুবককে পিটিয়ে মারল (Lynched) উন্মত্ত জনতা (Mob)। বুধবার সকাল এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে আসানসোলে (Asansol)। পুলিশ একজনকে গ্রেফতার করেছে। আরও কয়েকজনতে সন্দেহভাজন হিসেবে আটক করা হয়েছে।  গত ৩০ আগস্ট বিধানসভায় একটি বিল পাস হয়েছে। সেই বিল অনুযায়ী, গণপিটুনির ক্ষেত্রে কোনও ব্যক্তি আহত হলে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও হত্যার ক্ষেত্রে মৃত্যুদণ্ডের প্রস্তাব আনা হয়েছে। এর মধ্যেই আবারও মর্মান্তিক ভাবে প্রাণ গেল এক ব্যক্তির। আসানসোল দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেটের তরফে জানানো হয়েছে মৃত ব্যক্তির বয়স ৩৫ থেকে ৪০ বছর। তাঁকে ছেলেধরা সন্দেহে ল্যাম্পপোস্টে বেঁধে রাখা হয়।
পরে দড়ি খুলে তাঁকে মারতে শুরু করে উন্মত্ত জনতা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিশ। সেখান থেকে ওই ব্যক্তিকে উদ্ধার করে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। হাসপাতালে মৃত্যু হয় ওই ব্যক্তির।

এক সিনিয়র পুলিশ আধিকারিক বলেন, ‘‘আমরা এখনও ওই ব্যক্তিকে শনাক্ত করতে পারিনি। একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ভাইরাল হওয়া ভিডিও ক্লিপিং দেখে আরও কয়েকজন সন্দেহভাজনকে আটক করা হয়েছে।''

তিনি আরও জানান, তাঁরা তদন্ত শুরু করেছেন।

৩০ আগস্ট বিধানসভায় ধ্বনি ভোটে পাস হয় পশ্চিমবঙ্গ (গণপিটুনি নিবারণ) বিল, ২০১৯। সম্প্রতি বেশ কয়েকটি গবাদি পশু চোরাচালানকারী বা ছেলেধরা সন্দেহে পিটিয়ে মারার ঘটনা ঘটার পর এই বিল পাস করা হয়। গণপিটুনিতে কোনও ব্যক্তি আহত হলে অপরাধীদের তিন বছর জেল থেকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের কথা বলা হয়েছে ওই বিলে। সেই সঙ্গে দিতে হবে ১ থেকে ৩ লক্ষ টাকা জরিমানা। আক্রান্তের মৃত্যু হলে মৃত্যুদণ্ড ও সর্বোচ্চ পাঁচ লক্ষ টাকার কথা বলা হয়েছে ওই বিলে।

Post a Comment

0 Comments