রাজ্যে গণপিটুনিতে মৃত্যুদন্ডের আইন হলেও পিটিয়ে হত্যার শিকার মুসলিম যুবক

দেশজুড়ে পিটিয়ে হত্যা নিয়ে গোটা দেশ যখন উত্তাল ঠিক এই মুহূর্তে পিটিয়ে হত্যার ঘটনা ঘটে গেল মুর্শিদাবাদের সদর বহরমপুরে। আজ দুপুর ১২ টা নাগাদ বহরমপুরের লালদিঘী এলাকায় ডাঃ এ.কে ঘটকের চেম্বারে পিটিয়ে হত্যা করা হল ৩১ বছরের আব্দুল খাবিরকে। আব্দুল খাবিরের বাড়ি বহরমপুর ব্লকেরই শাহাজাদ পুর গ্রামে। পেশায় রাজমিস্ত্রী। তিন কন্যার বাবা। এই ঘটনায় যে ঘরে ডাঃ ঘটকের চেম্বার সেই ঘরের মালিক অশোক বড়াল এবং ডাক্তারের সহায়ক রণজিৎ বিশ্বাসকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ । আব্দুল খাবিরের স্ত্রীর আকলিমা বিবি জানান, গ্রামেরই একটি বাড়িতে রাজমিস্ত্রীর কাজ করতে গিয়ে। দুপুর ১ টা নাগাদ একটি অজানা ফোন থেকে তাকে জানায় খাবিরকে মারা হয়েছে ডাঃ ঘটকের চেম্বারে। তারা সাথে সাথে সেখানে এসে শুনতে পাই যে লাশ পুলিশ নিয়ে চলে গেছে পোস্ট মর্টেম করার জন্য। স্থানীয় মানুষের দাবি তাকে হাত-পা বেঁধে চেম্বারের মধ্যে মারা হয়েছে।

এই পিটিয়ে হত্যার প্রতিবাদে এবং ডাঃ এ. কে ঘটকের গেপ্তারের দাবিতে এসডিপিআই পক্ষ থেকে উত্তর পাড়া মোড়ে ৩৪ নং জাতীয় সড়ক অবরোধ করা হয়। অবশেষে জেলা পুলিশ ডাঃ ঘটককে গেপ্তারের প্রতিশ্রুতি দিলে অবরোধ তুলে নেওয়া হয় ।

 Click Here To Watch Video

Post a Comment

0 Comments